কে এই নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার!

২০০১ থেকে খালেদা জিয়া পেছনে থেকে লোকটিকে পরিপুষ্ট করেন যার ফলে ২০০৫ সালের একদিন লোকটি অফিসে একজন নারী দর্শনার্থী প্রবেশ করলে তিনি সেই নারীটিকে ধর্ষনার্থী বিবেচনা করে তাকে ধর্ষণ করতে গিয়ে ধরা খান।অতপর সচিবালয়ের অন্যান্য স্ট্যাফরা ধরে এই লোকটি গণধোলাই দিয়ে ল্যাংটা করে দেন,যা পরে তখনকার জাতীয় দৈনিক সংবাদ মাধ্যমগুলিতে স্ব চিত্র প্রতিবেদন আকারে খবর প্রকাশিত হয়!

জিয়া খালেদা জিয়ার আদর্শের এই যৌন সৈনিকটি হলেন বর্তমানে তথাকথিত নীতি কথা আওড়ানো নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার!যিনি গতপরশু অস্তিত্বে আঘাত করার অভিযোগ এনেছেন।তার সেই অভিযোগ সত্য,তবে অভিযোগটিতে শব্দগত ভুল আছে! অস্তিত্বে আঘাত করা হয়নি বরং তার লিঙ্গাস্তিত্বে আঘাত করা হয়েছে!

এই তথ্যের নিশ্চয়তার জন্য পোষ্টে দেয়া উপরের ছবিতে ক্লিক করার অনুরোধ করছি,এটা তখনকার দৈনিক সংবাদের পেপার কাটিং।

এবং অনেকের মনেই প্রশ্ন আসতে পারে এমন লোককে তাহলে রাষ্ট্রপতি কেন নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ দিলেন? 

বাস্তবতা হলো,নির্বাচন কমিশনার হিসেবে বিএনপির পক্ষ থেকে যে কয়েকজনের নাম প্রস্তাব করা হয়েছিল তাদের ভেতর এই লোকটাই ছিল সর্বোচ্চ ভালো! এবার বুঝুন কত কত ভালো লোকদের নাম তারা প্রস্তাব করেছিল!

Leave a Reply