লক্ষ্মীপুরে জেলা নতুন কমিটি বরণ শেষে সড়ক দূর্ঘটনায় আহত সজিবের খোঁজ নেননি সভাপতি-সম্পাদক

লক্ষ্মীপুর জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির বরণ অনুষ্ঠান শেষে মোটর সাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন ছাত্রলীগ নেতা সজিব। গত ৩০ এপ্রিল সোমবার লক্ষ্মীপুর-চৌমুহনী মহাসড়কে এদূর্ঘটনা ঘটে। চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক কাজী মামুনুর রশিদ বাবলু বলেন, শনিবার (২৬ মে) সকাল ১০টায় উন্নত চিকিৎসার জন্য সজিবকে ভারতের চেন্নাই পাঠানো হয়েছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য এম. মাসুদুর রহমান মাসুদ বলেন, আমরা সর্বক্ষন থানা ছাত্রলীগ আমাদের সর্বোচ্ছটা দিয়ে সহায়তা ও চেস্টা করছি কিন্তু তা নিতান্তই পর্যাপ্ত নয় ও শাহ পরান শাকিল বলেন, ছাত্রলীগের প্রভাবশালী নেতাগণ এই অবস্থায় সহায়তা না করলে হয়তো পা টা রক্ষা করা সম্ভব নয়। দীর্ঘদিন ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল সে। টাকার অভাবে এতোদিন সে উন্নত চিকিৎসা নিতে পারে নি। লক্ষ্মীপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন শরীফ বলেন, সময়ের অভাবে সজিবকে দেখতে যাওয়ার সুযোগ হয় নি।

দীর্ঘ ২৬ দিনেও আহত ছাত্রলীগ নেতা সজিবকে দেখার সময় হয়নি লক্ষ্মীপুর জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের। এখন পর্যন্ত সজিবের চিকিৎসার জন্য জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কোনো আর্থিক সহযোগিতা ও প্রদান করা হয় নি। টাকার অভাবে দীর্ঘদিন উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত থাকায় সজিবের অবস্থার অবনতি ঘটেছে। তার একটি পা কেটে ফেলতে হতে পারে বলেও জানিয়েছেন ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালের চিকিৎসকগণ। আহত মো. সজিব সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের শেখপুর গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে ও একই ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি। তার বাবা একজন কৃষক। তার ভাই রাজিবুল ইসলাম নিশান কফিল উদ্দিন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাকিব হোসেন লোটাস বলেন, টাকার অভাবে একজন ছাত্রলীগ নেতার পা কেটে ফেলতে হবে, এটা সত্যিই দুঃখজনক ও লজ্জার। আমাদের সময় বিভিন্নভাবে আহত ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের দেখতে হাসপাতালে ছুটে যেতাম। ভালো চিকিৎসার জন্য তাদেরকে আর্থিক সহযোগিতার ব্যবস্থা করে দিতাম বলে জানান সাবেক এই ছাত্র নেতা। এছাড়াও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি চৌধুরী মাহমুদুন্নবী সোহেল সার্বক্ষণীক খবর রাখছেন আর বেশ উদ্বিগ্ন ভাব প্রকাশ করে সহায়তার চেস্টা চালানোর কথা বলেছেন।